নতুন পে-স্কেলে মাসিক বেতন থেকেই কাটা হবে দ্বিগুণ কর!

সরকার নতুন পে-স্কেল ঘোষণা করেছে অনেক আগেই। বেতন কাঠামোয় যুক্ত হচ্ছে নতুন আরও সুযোগ-সুবিধা। নববর্ষে সরকারি চাকরিজীবীরা বোনাসও পকেটে ডুকিয়েছেন। তবে সবকিছু ছাপিয়ে এবার করের যাতাকলে পড়তে যাচ্ছেন কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। বেতন হিসেবে এবার দিতে হবে ডাবল কর। নতুন এ নিয়মে যারা আগে কর দিতেন, তাদের এখন গুনতে হবে দ্বিগুণ কর। আর করের আওতার বাইরে যারা ছিলেন তাদের অনেককেই নতুন বেতন কাঠামোয় কর দিতে হবে।

সূত্র মতে, সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের প্রতি মাসে বেতন দেওয়ার সময়ই যাতে হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তারা ওই মাসের বেতন থেকে করের টাকা কেটে রাখেন, সে জন্য চিঠি পাঠিয়েছেন এনবিআর চেয়ারম্যান মো. নজিবুর রহমান।
আয়কর অধ্যাদেশ ১৯৮৪-এর ৫০ ধারা অনুযায়ী, বেতন খাতে প্রাপ্ত আয়ের ওপর উৎস কর কর্তনের বিধান রয়েছে বলে সব মন্ত্রণালয়ের সচিবকে পাঠানো চিঠিতে স্মরণ করিয়ে দিয়েছেন তিনি। নিয়মানুযায়ী প্রতিটি মন্ত্রণালয় যাতে তার কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বেতন দেওয়ার সময় উৎস কর কর্তন করে সে জন্য নির্দেশনা দিতে সচিবদের অনুরোধ করেছেন এনবিআর চেয়ারম্যান।

নজিবুর রহমান বলেন, এরই মধ্যে জারি হওয়া নতুন বেতন কাঠামোতে সরকারি কর্মচারীদের বেতন-ভাতা উল্লেখযোগ্য হারে বেড়েছে। এর ফলে বেতন-ভাতা খাতে উৎস করের পরিমাণও বাড়বে। কর আইনের বিদ্যমান বিধান অনুযায়ী সরকারি কর্মচারীদের মূল বেতন, উৎসব ভাতা ও বোনাস খাতে প্রাপ্ত আয় করযোগ্য।
চিঠিতে এনবিআর চেয়ারম্যান বলেন, কর আইনের বিদ্যমান বিধান অনুযায়ী সরকারি চাকরিজীবী অর্থবছরের শুরুতে তার প্রাপ্য বেতন, উৎসাব ভাতা ও বোনাসের পরিমাণের ভিত্তিতে বেতন-ভাতা খাতে করযোগ্য আয় নিরূপণ করে তার ওপর প্রযোজ্য আয়কর থেকে বিনিয়োগজনিত আয়কর রেয়াত ও উৎস কর বা অগ্রিম কর বাদ দিয়ে নিট করের পরিমাণ হিসাব করবেন। সে অনুযায়ী মাসিক ভিত্তিতে উৎস করের পরিমাণ হিসাব করে তা বেতন বিলে আয়কর কর্তন হিসেবে প্রদর্শন করবেন।

চিঠিতে আরো বলা হয়েছে, সংশ্লিষ্ট হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তা নির্ধারিত ছকে বেতন-ভাতাদি খাতে উৎস কর্তন করা করের একটি সনদ সংশ্লিষ্ট সরকারি চাকরিজীবীকে দেবেন। চাকরিজীবী ওই সনদ তার আয়কর রিটার্ন দাখিলের সময় উৎস কর পরিশোধের প্রমাণ হিসেবে আয়কর কর্তৃপক্ষের কাছে দাখিল করবেন।

রাজস্ব বোর্ডের কর্মকর্তারা জানান, কোনো সরকারি চাকরিজীবী ব্যক্তিগত গাড়ির মালিক হলে গাড়ির ফিটনেস নবায়নকালে পরিশোধ করা অগ্রিম আয়কর বাদ দিয়ে নিট করের পরিমাণ হিসাব করে তা ১২ দিয়ে ভাগ করে মাসিক বেতন বিলে উৎস কর পরিশোধ করবেন।

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s